বিনোদন
Trending

‘ভিউ বাবা’ আমাদের ভিউ এবং এক আক্ষেপের গল্প!

ভরের একক কেজি,শক্তির একক জুল, আর সাম্প্রতিক সময়ে কন্টেন্ট মাপার আরেকটি একক হচ্ছে ভিউ। কোন একটি কন্টেন্ট ভালো কি খারাপ তা সহজেই মাপা হয়ে যাচ্ছে তার ভিউ হিসেব করে। যে কন্টেন্ট এর ভিউ যত বেশী ওই কন্টেন্ট তত ভালো কন্টেন্ট বলে তকমা লাগানো হচ্ছে তার গায়ে।

কিন্তু এই হালের ‘ইউটিউব ভিউ’ দেখে কন্টেন্টকে ভালো/মন্দ বলা তা যে দর্শক মহলের কাছে কতবড় জোচ্চরি আর ঠকানো তা স্পষ্টত দেখিয়েছেন মাবরুর রশিদ বান্নাহ ঈদে তার মুক্তিপ্রাপ্ত ফিকশন ‘ভিউ বাবা’ দিয়ে।

‘ভিউ বাবা’ আমাদের যত্রতত্র কন্টেন্ট বানানোর এই যুগে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেওয়া এক ফিকশনের নাম। যেখানে পরিচালক সাদাকে সাদা এবং কালোকে কালো বলে দেখাতেই বেশী স্বাছন্দবোধ করেছেন। স্পেডকে স্পেড বলাই বাঞ্ছনীয় কাজটি ই করে দেখিয়েছেন তিনি।

হাস্য রসাত্নক ও স্যাটায়ার ধর্মী এই ফিকশনটি দর্শকমহলে নানান দিক আকর্ষণ কুড়ানোর অন্য একটি কারন হচ্ছে এটি সদ্য প্রয়াত গুনী অভিনেতা,এবং পরিচালক হুমায়ূন সাধু’র অভিনীত শেষ কাজ। সম্ভবতো এই কাজটির পরেই হুমায়ূন সাধু পাড়ি জমিয়েছেন অনন্ত নক্ষত্রের অন্তরালে।

লিখাটিতে কন্টেন্ট এর বিষয়ে স্পয়লার দিলে পাঠক দেখার আগ্রহ হারিয়ে ফেলতে পারেন বিধায় খোলসা করে কিছু বলা হচ্ছে না।

কেউ একজন বলেছিলেন বর্তমান যুগ বাবাদের যুগ।তেল বাবা, জুতা বাবা,শিকল বাবা, ন্যাংটা বাবা, তালা বাবা।এসব নামজাদা বাবার পর ঈদে এসেছে ভিউ বাবা। আমরা নানারকম সমস্যা সমাধানের জন্যে ছুটে যাই বাবার দরবারে।
তেমনি এই নাটকে মোশারফ করিম চরিত্রে অভিনয় করা পরিচালক সাহেব ও তার নাটকে হালের ক্রেইজ ইউটিউ ভিউ এর জন্যে ছুটে যান ভিউ বাবার ডেরায়।

‘ভিউ বাবার দরবারাতে ফেরে না কেউ খালি হাতে’

সেখানে মুশকিল আসান ভিউ বাবা হুমায়ূন সাধু। যার কাজ ভিউ দিয়ে মানহীন কন্টেন্ট হিট করা। দর্শক হুমড়ি খেয়ে পড়ে এই কন্টেন্ট।মিলিয়ন মিলিয়ন ভিউ ছাড়িয়ে যায় অনায়সে।

একদিন তার ভুল ভাঙে। তিনি বুঝতে পারেন এত সব ভিউজ কামিয়ে তিনি হয়তো অর্থকড়ি পাচ্ছেন ঠিক কিন্তু মনে শান্তি পাচ্ছেন না। মনের শান্তির জন্যে তিনি নানান আরেক পদক্ষেপ

এভাবে এগুতে থাকে গল্প……

তবে এইটুকুন বলাই যায় বাঙলা নাটকের কাতকুতু দিয়ে হাসানো আর গল্পহীন কন্টেন্ট বানানোর নিদানকালে ‘ভিউ বাবা’ যেন এক পশলা স্বস্তির বৃষ্টি হয়ে এসেছে।

দর্শক আশাহত করেন নি মুক্তির কয়েকঘন্টা পরেই ইউটিউব ট্রেন্ডে ভিউ-বাবা এমনটিই নিজেরে স্ট্যাটাসে জানিয়েছেন পরিচালক মাবরুর রশিদ বান্নাহ

দেশের অন্যতম গুনী অভিনেতা মোশারফ করিম তার ক্যারিয়ারের মনে রাখার মতো অভিনয় করেছেন ‘ভিউ বাবা’।ক্যামেরার পেছনের অনেক না বলা গল্প লিনিয়ার ওয়েতে বলা হয়েছে।

এছাড়া ঈভান সাইর সহ প্রমুখ অভিনেতা অভিনেত্রীরা নিজেদের সবটুকুন দিয়ে উগড়ে দিতে চেয়েছেন।

বাঙলা নাটকের এমন একটি পোস্ট মর্ডেম/অন্ত:ছেদ অনেকদিন ধরে দেখার জন্যে যারা অভিপ্রায় নিয়ে বসে ছিলেন তারা খানিকটা হলেও অস্থির সময়ে স্বস্তি পাবেন।

ঈদ-উল-আযহায় প্রতিদিন মুক্তি পাচ্ছে নানান টিভি চ্যানেল,ইউটিউব,অন্যান্য প্লাটফর্ম গুটি গুটি টেলিফিল্ম, একক এবং ধারাবাহিক নাটক।

মুক্তিপ্রাপ্ত এসব কন্টেন্ট কতগুলো বা আমাদের জন্যে স্বাস্থ্যসম্মত কিংবা কতগুলো বা আমাদের জোড় করে গিলিয়ে দেওয়া হচ্ছে তাই আকার ইঙ্গিতে বলেছে ‘ভিউবাবা’

‘ভিউ বাবা’ আরো একবার চোখে আঙুল তুলে আমাদের দেখিয়ে দিলো কন্টেন্ট ভালো হয় ইউটিউব ভিউ দেখে নয়। কন্টেন্ট এর প্রাণ হচ্ছে গল্প আর মেকিং।

Show More

Related Articles

Back to top button
Close