দূর পরবাস

বর্হিবিশ্বে অন্তত ৩২৩ জন বাংলাদেশির মৃত্যু

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ইউরোপ-আমেরিকাসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রবাসী বাংলাদেশিদের মৃত্যু হচ্ছে। বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের দূতাবাস ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের তথ্য অনুযায়ী এ পর্যন্ত এ করানোভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বর্হিবিশ্বে অন্তত ৩২৩ জন বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে।

এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশি মারা গেছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে শনিবার (২৫ এপ্রিল) পর্যন্ত ১৯৫ জনের প্রাণহানি হয়েছে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ যুক্তরাজ্যে, দেশটিতে এ পর্যন্ত মারা গেছে ৭৯ জন। এছাড়া সৌদি আরবে ১৫, ইতালিতে ৮, কানাডা ও সংযুক্ত আরব আমিরাতে ৬ জন করে, স্পেনে ৫, কাতারে ৪ এবং কুয়েত, সুইডেন, কেনিয়া, লিবিয়া ও গাম্বিয়ায় ১ জন করে বাংলাদেশি মৃত্যুবরণ করেছে। সব মিলিয়ে ৩২৪ জন বাংলাদেশির মারা যাওয়ার খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে।

তবে গত ২৪ ঘণ্টায় যুক্তরাষ্ট্র ছাড়া অন্য কোনো দেশে নতুন করে বাংলাদেশের নাগরিকদের মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি।

আক্রান্তের দিক থেকে সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশি আক্রান্ত হয়েছে সিঙ্গাপুরে। দেশটিতে আক্রান্ত ১০ হাজারের প্রায় অর্ধেকই বাংলাদেশি। কিন্তু দেশটিতে এখনো মৃত্যুুর খবর পাওয়া যায়নি। এছাড়া কাতারে ৫ শতাধিক বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। স্পেনে প্রায় ৩০০ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত। এর বাইরে পর্তুগালে ২২ জন আক্রান্ত হয়েছে, তবে কোনো বাংলাদেশি মৃত্যুবরণ করেনি। তবে ইরাক, ওমান, বাহরাইন, জর্ডানে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে বাংলাদেশিদের আক্রান্তের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সেলিম রেজা বলেন, এটি খুবই দুঃখজনক যে করোনায় দেশের বাইরে আমাদের অনেকজন মারা যাচ্ছে। তবে আমরা যোগাযোগ রাখছি সংশ্লিষ্ট দেশে, তাদের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। কিন্তু মৃত্যুর সংবাদ খুবই দুঃখজনক।

তিনি বলেন, এর বাইরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের জরুরি খাদ্য সহায়তা দেওয়ার জন্য দু-দফায় ৮ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। অনেক দেশের সঙ্গে কথা বলে আমাদের শ্রমিকদের ফিরিয়ে আনা হচ্ছে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে এ পর্যন্ত ১ লাখ ৯৭ হাজারের বেশি মানুষ মৃত্যুবরণ করেছে। পাশাপাশি আক্রান্ত হয়ে লড়ছে ২৮ লাখ ৪৫ হাজার মানুষ।

Show More

Related Articles

Back to top button
Close