আন্তর্জাতিক

‘যুক্তরাষ্ট্রের তহবিল বন্ধের ঘোষণা দুঃখজনক’

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে (WHO) চীনকেন্দ্রিক উল্লেখ করে বাৎসরিক ৫০০ মিলিয়ন ডলারের তহবিল বন্ধ করে দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। মহামারি করোনাভাইরাসের এমন ক্রান্তিকালে WHO এর সবচেয়ে বড় সাহায্যদাতা দেশটির তহবিল বন্ধ করে দেওয়াটাকে দুঃখজনক বলে উল্লেখ করেছেন সংস্থাটির মহাপরিচালক ডা. টেড্রোস আধানম।

তবে যুক্তরাষ্ট্র তহবিল বন্ধ করলেও বিশ্বকে যথারীতি মহামারির এই সময়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহব্বান জানিয়েছেন তিনি।

টেড্রোস বলেছেন, ‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনেক পুরনো ও উদার বন্ধু। আশা করছি ভবিষ্যতেও তারা সেভাবেই থাকবে। WHO এর তহবিল বন্ধ করার বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সেটা সত্যিই দুঃখজনক। আমি আগেও বলেছি এখন সময় মহামারির বিরুদ্ধে লড়াই করার। যেটা আমাদের ভয়ঙ্কর শত্রু। এক্ষেত্রে বিশ্বকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।’

টেড্রোস বলেছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা যুক্তরাষ্ট্রের তহবিল বন্ধের প্রভাব নিয়ে রিভিউ করবে। এরপর আর্থিক গ্যাপ ঘোচাতে অন্যান্য সদস্য দেশের সঙ্গে আলোচনা করবে। যাতে তাদের কাজ নিরবিচ্ছিন্নভাবে করতে পারে।

এদিকে WHO এর ইমার্জেন্সি এক্সপার্ট মাইক রায়ান বলেছেন, ‘শিগগিরই আমরা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বাদে অন্যান্য ১৯৩টি সদস্য দেশের সঙ্গে WHO এর বাজেটের বিষয়ে আলোচনায় বসবো। তবে আমরা এখন এসব বিষয়ে কম মনোযোগ দিব। আমাদের এর চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ কাজ করার আছে, সেটা হল করোনাভাইরাস দমন করা ও জীবন বাঁচানো।’

উল্লেখ্য, হোয়াইট হাউজের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র প্রতি বছর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে ৪০০ থেকে ৫০০ মিলিয়ন ডলার (৪ হাজার ২৪৫ কোটি ৫০ লাখ ৪০ হাজার টাকা) তহবিল দিয়ে থাকে। যেখানে চীন দিয়ে থাকে মাত্র ৪০ মিলিয়ন (৩৩৯ কোটি ৬৫ হাজার টাকা)।

Show More

Related Articles

Back to top button